এক দেহে দুই হৃদপিণ্ড

|

মানব দেহে একটি হৃদপিণ্ড থাকে, এটা সবাই জানে। কিন্তু এক দেহে কি দুই দুইটি থাকা সম্ভব? প্রথমে ‘না’বললেও পরমুহূর্তেই দ্বিধায় পড়বেন অনেকেই। এখানে প্রেম-ভালোবাসা ঘটিত ব্যাপার নিয়ে কথা হচ্ছে না। এটি পুরোপুরি বাঁচা-মরার প্রশ্ন!

এক দেহে দুই হৃদপিণ্ড থাকা সম্ভব। ঠিক এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে ভারতের হায়দরাবাদের অ্যাপোলো হাসপাতালে। রোগীর প্রাণ বাঁচাতে একটি হৃদপিণ্ড থাকা সত্ত্বেও আরেকটি হৃদপিণ্ড জুড়ে দিয়েছেন ডাক্তারা।

হার্ট ফেলিওরের শেষ ধাপে রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল। যে কোনো মুহূর্তেই মারা যাবেন তিনি। অগত্যা তার হৃদযন্ত্র প্রতিস্থাপনে তাকে অপারেশন থিয়েটারে নেওয়া হয়েছিল।

কিন্তু অস্ত্রোপচারের শুরুতে কোথাও যেন একটি বিষয় গোলমেলে রয়েছে বলে মনে হচ্ছিল ডাক্তারদের। বুক চিরে ফেলার পর তারা দেখেন, ৫৬ বয়সী ওই রোগীর দেহে একটি ছোট্ট হৃদপিণ্ড আগে থেকেই রয়েছে।

জানা গেল, ছোট্ট ওই হৃদপিণ্ডটি ১২ বছরের এক বালিকা। মেয়েটির মারা যাওয়ার আগে হৃদপিণ্ডটি তাকে দান করে গিয়েছিল। পূর্ণ বয়স্ক ব্যক্তির জন্য ওই হৃদপিণ্ডটি নেহায়েৎ ছোট।

রোগীকে আসন্ন মৃত্যু থেকে বাঁচাতে ৭ ঘণ্টা ধরে অস্ত্রোপচার চালান ডাক্তাররা। ওই ছোট্ট হৃদপিণ্ডটি রেখেই পেরিকার্ডিয়ামের একাংশ কেটে ফুসফুস ও পেরিকার্ডিয়ামের মাঝে নতুন হৃদপিণ্ডটি চাপাচাপি করে জুড়ে দেন তারা।

চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় একে বলে পিগিব্যাংক হার্ট ট্রান্সপ্ল্যান্ট। বিশ্বের অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে এ ধরনের দুই হৃদপিণ্ডওয়ালা দেড়শ’ মানুষ রয়েছেন।

দু’টি হৃদপিণ্ড সংযুক্ত থাকলেও হৃদস্পন্দন আলাদা আলাদাভাবে হয়ে থাকে বলে ডাক্তাররা জানিয়েছেন।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply