ছেলেকে ঘরে আটকে, মাকে ডেকে নিয়ে হত্যা

|

স্টাফ রিপোর্টার,মানিকগঞ্জ

মানিকগঞ্জে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে হত্যা করার অভিযোগ ওঠেছে। এসময় তার ছেলেকে ঘরের ভেতরে আটকে রাখা হয়। শনিবার মধ্যরাতে জেলার শিবালয় উপজেলার শিমুলিয়া ইউনিয়নের ছোট বুতুনী গ্রামে এঘটনা ঘটে। নিহত আয়েশা বেগম(৩৫) ওই গ্রামের সৌদী প্রবাসী নজরুল ইসলামের স্ত্রী।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, আয়েশা বেগম দুই সন্তানের জননী। তার মেয়ে সোহানা (১২) একটি আবাসিক মাদ্রাসায় পড়াশুনা করে। অষ্টম শ্রেণিতে পড়ুয়া ছেলে মবিন হোসেনকে সাথে নিয়ে তিনি স্বামীর বাড়িতে থাকতেন। প্রতিদিনের মতো শনিবার রাতেও আয়েশা ছেলেকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন।

রাত একটার দিকে পাশের গ্রামের মনোয়ার ‍উদ্দিন বেপারীর ছেলে আজাদ হোসেন তাকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে। এরপর তাকে টেনে হেচড়ে ঘর থেকে বের করে নিয়ে যায়। ছেলেকে ঘরের ভেতরে রেখে বাইরে থেকে দরজা শিকল দিয়ে আটকে দেয়।

পরে তাকে বাড়ীর পার্শ্বের একটি পরিত্যক্ত স্থানে মৃতপ্রায় অবস্থায় পাওয়া যায়। উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান। তার শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাতের চিহৃ রয়েছে। তবে হত্যাকাণ্ডের সঠিক কারণ জানাযায়নি।

শিবালয় থানার ওসি হাবিবুল্লাহ সরকার জানান, মরদেহটির ময়না তদন্তের পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। এই ঘটনায় এখনো থানায় মামলা হয়নি। তবে প্রাথমিক অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত আজাদকে আটকের চেষ্টা করা হচ্ছে।

জেলার ঘিওর উপজেলার বালিয়াখোড়া ইউনিয়নের চৌবাড়িয়া গ্রামের দুলাল মিয়ার মেয়ে আয়েশা বেগমের সাথে শিবালয় উপজেলার শিমুলিয়া ইউনিয়নের ছোট বুতুনী গ্রামের ওয়াজ উদ্দিনের ছেলে নজরুল ইসলামের ২২ বছর আগে বিয়ে হয়। গত বছর সৌদি আরবে চাকরি নিয়ে যান নজরুল ইসলাম।









Leave a reply