শেষ মিনিটে ‘আত্মঘাতী’ মরক্কো, কপাল খুললো ইরানের

|

শেষ মিনিটের গোলে বি-গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মরক্কোর বিপক্ষে জয় পেয়েছে ইরান। তবে, গোলটি করেননি ইরানের কোনো খেলোয়াড়। ইনজুরি সময়ে আত্নঘাতী গোলে সর্বনাশ ডাকেন মরোক্কোর বদলি খেলোয়াড় আজিজ বউহাদ্দৌজ। নরদিন আমারবাতের নেয়া ফ্রি-কিক হেড দিয়ে বাঁচাতে গিয়ে নিজেদের জালেই বল জড়ান এই ডিফেন্ডার।

এর ফলে, ১৯৯৮ এর পর বিশ্বকাপে প্রথম জয় পেয়েছে ইরান। অথচ, ম্যাচজুড়ে ৬৮ শতাংশ বল নিজেদের পায়ে রেখেও গোলের দেখা পায়নি মরক্কো। আক্রমণের পসরা সাজালেও তাতে বাধা হয়ে দাঁড়ান ইরানের গোলকিপার আলিরেজা রেইরানভান্দ।

অবশ্য, ইরানও সুযোগ কম পায়নি। ম্যাচের ৪৩ মিনিটে গোলরক্ষককে একা পেয়ে গিয়েছিলেন সরদার আজমুন। সে শট অসাধারণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দিয়েছেন মুনির মোহামেদি। ফিরতি বল পেয়েছিলেন আলিরেজা জাহানবখশ। শটটাও ভালো নিয়েছিলেন জাহানবখশ। কিন্তু সে বলেরও দিক পরিবর্তন করে দিলেন মোহামেদি। এমন সুযোগ হাতছাড়া করে ইরান যতটা হতাশ ছিল, গোটা ম্যাচজুড়ে এমন হতাশা বহুবার দেখা গেছে মরক্কান শিবিরে।

ইনজুরি সময়সহ ৯৬ মিনিটের ম্যাচে ফাউল হয়েছে ৩৬টি! সে হিসেবে ৪টি হলুদ কার্ডকে একটু কমই দেখাচ্ছে। আসলে সেরকম কঠিন ট্যাকেল খুব বেশি হয়নি। বেশিরভাগ খোলোয়াড়ই যেন মাটিতে গড়াগড়ি খাওয়ার প্রতিযোগিতায় ছিলেন!

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply