পাসপোর্ট কর্মকর্তাকে জখম: যুবলীগ নেতাসহ ২৩ জনকে আসামি করে চার্জশিট

|

বগুড়া ব্যুরো

বগুড়ার আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারি পরিচালক শাজাহান কবিরকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে জখম করার মামলায় পৌরসভার কাউন্সিলর ও যুবলীগ নেতা মোস্তাকিম রহমানসহ ২৩ জনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে পুলিশ। আগামী ১৩ ডিসেম্বর মামলার পরবর্তী শুনানির দিনে অভিযোগপত্রটি গ্রহণ করে পরবর্তী বিচারিক প্রক্রিয়ার আদেশ দিতে পারেন আদালত।

গত ২৯ মার্চ অফিস থেকে বেরিয়ে গ্রামের বাড়ি যাবার পথে দুপুরে শহরের কৈগাড়ী এলাকায় সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে শাজাহান কবিরকে। ওই ঘটনায় মামলা দায়েরের পর রাতেই গ্রেফতার করা হয় বগুড়া পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোস্তাকিমের তিন সহযোগীকে। পরদিন ভোরে হিলি সীমান্ত থেকে ভারতে পালিয়ে যাবার সময় পুলিশের হাতে আটক হন শহর যুবলীগের দফতর সম্পাদক মোস্তাকিম। ঘটনার পর তাকে কাউন্সিলের পদ থেকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় সাময়িক বরখাস্ত করলেও পরে তিনি জামিনে বেরিয়ে উচ্চ আদালতে আপিল করে পদ ফিরে পান।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, পাসপোর্টের তদবিরে রাজি না হওয়ায় জেরে শাজাহান কবিরের ওপর মোস্তাকিমের নির্দেশে হামলা হয়েছে-এমন সত্যতা পেয়েছেন তারা। মামলার অভিযোগপত্রে তাই মোস্তাকিম ও তার ২২ সহযোগীকে আসামি করে। এই ২২ জনের বেশিরভাগই শহর যুবলীগ এবং ৯ ও ১০ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের নেতা ও কর্মী।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক জুলহাজ উদ্দিন যমুনা নিউজকে জানান, গত ২৭ নভেম্বর বগুড়ার অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তারেক হায়দারের আদালতে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছেন তিনি। আগামী ১৩ ডিসেম্বর মামলার পরবর্তী শুনানির দিন এটি আনুষ্ঠানিকভাবে আদালত গ্রহণের পর শুরু হবে পরবর্তী বিচারিক প্রক্রিয়া।









Leave a reply