সরস্বতী পূজা আজ

|

জ্ঞানের আলো ছড়াতে আবারো মর্ত্যে দেবী। এক হাতে বেদ, অন্য হাতে বীণা। এজন্য তাকে বীণাপানিও বলা হয়। সনাতন ধর্মীয় বিশ্বাস অনুযায়ী, শুক্লা পঞ্চমী তিথিতে ধরাধামে রাজহংসে চড়ে আসেন তিনি।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব এই সরস্বতী পূজা। আজ দেশব্যাপী পূজা উদযাপন করছেন ভক্তরা। সনাতন ধর্মালম্বীদের মতে, দেবী সরস্বতী সত্য, ন্যায় ও জ্ঞানালোকের প্রতীক। তার আর্বিভাবের সাথে সাথেই সব অশুভ শুভ হয়ে যায়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলে ঘটা করে দেবীকে অভ্যর্থনা জানানো হয়। প্রতিটি বিভাগ নিজস্ব সত্ত্বায় দেবীকে অলংকৃত করেন। রোববার সকালে দেবীর পূজা শুরু হয় অভ্র, আবীর, দোয়াত কলম, আমের মুকুল, যবের শীষ দিয়ে। এরপর দেবীর চরণে অঞ্জলি প্রদান করেন ভক্তরা। পুরোহিতের সাথে সাথে মন্ত্র পড়েন, বিদ্যা অর্জনের প্রার্থনা করেন। ভক্তদের বিশ্বাস, বিদ্যার অধিষ্ঠাত্রী দেবী তার আশীর্বাদের মাধ্যমে মানুষের চেতনাকে উদ্দীপ্ত করতে প্রতি বছর আবির্ভূত হন।

স্বরসতী পূজার আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো হাতে খড়ি। সন্তানের পাঠের শুরুটা যেন বিদ্যার দেবীর আশীর্বাদে হয়, তারা যেন প্রকৃত মানুষ হিসেবে বড় হয়, সেই কামনা করেন মা-বাবা।

দুপুরে জগন্নাথ হলের পূজা মন্ডপ দেখতে আসেন শিক্ষামন্ত্রী দিপু মণি। এসময় তিনি বলেন, বাংলাদেশ ঐতিহ্যগতভাবে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। সব ধর্মের মানুষ আবহমান কাল থেকে এখানে মিলেমিশে বসবাস করে আসছে।









Leave a reply