পৌরসভার হিসাব রক্ষকের প্রায় ৩ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ, দুদকের মামলা

|

জাকারিয়া হৃদয়, পটুয়াখালীঃ
অবশেষে পটুয়াখালীর বহুল আলোচিত পৌরসভার বিতর্কিত হিসাব রক্ষক এসএম শাহিনের বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত ২ কোটি ৭৪ লাখ ৭৪ হাজার ৩’শ পঞ্চাশ টাকার মিথ্যা ও ভিত্তিহীন তথ্য দেয়ার অভিযোগে মামলা করেছে দুদক। আজ বেলা ১১ টায় পটুয়াখালী সদর থানায় মামলাটি দায়ের করেন দুদকের পটুয়াখালী সমন্বিত কার্যালয়ের উপ পরিচালক মোঃ আরিফ হোসেন। মামলা নং-২০।

মামলার বিবরনে জানা যায়, পটুয়াখালী দুদকের ই/আর নং ২/২০১৮ এর অনুসন্ধানকালে সংগৃহিত রেকর্ডপত্র ও সাক্ষীদের জবানবন্ধি পর্যালোচনায় দেখা যায় আসামি এসএম শাহিন এর বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয়ের সাথে অসংগতিপূর্ন সম্পদ রয়েছে মর্মে পরিলক্ষিত হওয়ায় তার বিরুদ্ধে তার সম্পদ বিবরনি নোটিশ জারির প্রেক্ষিতে ২০১৭ সালের ১১ ডিসেম্বর তারিখের দাখিলকৃত বিবরনিতে রুপালি ও ইসলামি ব্যাংক থেকে ৮৫লাখ টাকা, জীবনবীমার পলিসির কমিশন ও লোন বাবদ ৪৮ লাখ ৭৫ হাজার ৮৯০ টাকাসহ মোট ১ কোটি ৩৩লাখ ৭৫হাজার ৮৯০ টাকাসহ অন্যান্য খাতের ১ কোটি ৪০লাখ ৯৮ হাজার ৪৬০ টাকা মোট ২ কোটি ৭৪ লাখ ৭৪ হাজার ৩’শ পঞ্চাশ টাকার সম্পদের বিষয়ে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন তথ্য প্রদান করে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪ এর ২৬ (২) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন। পাশাপাশি উক্ত টাকার জ্ঞাত আয়ের সাথে অসংগতিপূর্ন সম্পদ অর্জনপূর্বক দখলে রেখে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪ এর ২৭(১) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন। যেকারণে আসামি এসএম শাহিনের বিরুদ্ধে উক্ত দুই ধারায় মামলা রুজু করা হয়।

এদিকে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, মামলাটি দুদক করেছে এবং পরবর্তি আইনি প্রক্রিয়া তারাই সম্পন্ন করবেন।

দুপুরে পটুয়াখালী পৌরসভায় গিয়ে এস এম শাহিনকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক পৌরসভার এক কর্মকর্তা জানান বর্তমানে তিনি ছুটিতে আছেন। তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মামলা হবার পর তিনি পলাতক।

এরআগে এসএম শাহিনের বিরুদ্ধে পৌরসভার ষ্টাফদের বেতনভাতা কর্তনসহ অর্থ আত্মসাত এবং নারী কেলেংকারীর বিভিন্ন অভিযোগ তুলে শহরের বিভিন্ন স্থানে লিফলেট বিতরণ করেন ভুক্তভোগির ব্যানারে শহরবাসী।









Leave a reply